হেলিকপ্টার ভাড়া কোথায় পাওয়া যায় | বিয়ের জন্য হেলিকপ্টার ভাড়া কত

হেলিকপ্টার ভাড়া কোথায় পাওয়া যায় : আজকের এই পোস্টের আলোচ্য বিষয় হল হেলিকপ্টার ভাড়া কোথায় পাওয়া যায় এবংবিয়ের জন্য হেলিকপ্টার ভাড়া কত করে। আপনারা যারা জানতে চান আপনার ভাড়া কোথায় পাওয়া যায় এবং বিয়ের জন্য হেলিকপ্টার ভাড়া কত তারা এই পোস্টটি মনোযোগ সহকারে করলাম আশা করি আপনাদের প্রশ্নের উত্তর পেয়ে যাবেন আশা করি পোস্টটি মাধ্যমে আপনারা বিষয়গুলো জানতে পারবেন।

আমাদের গুগল নিউজ ফলো করুন 

 অন্য পোষ্ট - শিওর ক্যাশ কোড

কষ্ট স্ট্যাটাস

সুপার স্টার এলইডি লাইট দাম


হেলিকপ্টার ভাড়া কোথায় পাওয়া যায় | বিয়ের জন্য হেলিকপ্টার ভাড়া কত



হেলিকপ্টার ভাড়া কোথায় পাওয়া যায়


বর্তমানে বাংলাদেশের কয়েকটি হেলিকপ্টার কোম্পানি রয়েছে। কোম্পানিগুলো থেকে হেলিকপ্টার ভাড়া দেওয়া হয়। হেলিকপ্টার ভাড়া করার আগে অবশ্যই নির্ধারিত টাকা পরিশোধ করে এরপর ভাড়া করতে হয়। আপনাদের সাথে হেলিকপ্টার ভাড়া কোম্পানি সম্পর্কে কথা বলব এবং কত হলে ভারা করতে পারবেন সে বিষয়গুলো আলোচনা করব। 



কোম্পানিগুলো থেকে হেলিকপ্টার ভাড়া দেওয়া হয় সে গুলো হলো: সাউথ এশিয়ান এয়ারলাইনস্ লিমিটেড, ইমপ্রেস অ্যাভিয়েশন লিমিটেড, স্কয়ার এয়ার লিমিটেড, পিএইচপি গ্রুপ, বাংলা ইন্টারন্যাশনাল, বিআরবি কেব্ল্, মেঘনা গ্রুপ, ইয়াং ইয়াং (আরিয়ান) গ্রুপ, এমএস বাংলাদেশ ইত্যাদি।


উপরে যে কোম্পানিগুলোর নাম বলা হয়েছে এই কোম্পানিগুলো থেকে আপনারা হেলিকপ্টার ভাড়া করতে পারবেন।



বিয়ের জন্য হেলিকপ্টার ভাড়া কত Helicopter Rent


উপরে আমরা আলোচনা করেছি হেলিকপ্টার ভাড়া কোথায় পাওয়া যায়। এখন আমি আপনাদের সাথে শেয়ার করবো বিয়ের জন্য হেলিকপ্টার ভাড়া ঘন্টায় কত করে এবং হেলিকপ্টার ভাড়া কত? হেলিকপ্টার ভাড়া করতে হলে কিছু নিয়ম মেনে নিতে হয়। সে নিয়ম গুলো আপনাদের সাথে শেয়ার করব। আশা করি এই পোস্ট থেকে আপনারা জানতে পারবেন বিয়ের জন্য হেলিকপ্টার ভাড়া কত করে নিয়ে থাকে।

আপনাদের সুবিধার্থে আমি কয়েকটা কোম্পানি নিয়ে আলোচনা করব কোন কোম্পানি থেকে কত টাকা করে হেলিকপ্টার ভাড়া করা হয়। আপনারা পুরো পোস্টটি মনোযোগ সহকারে পড়বেন। তাহলে একটু হলেও উপকৃত হবেন। 


সাউথ এশিয়ান এয়ারলাইনস্ :


যোগাযোগের ঠিকানা:  সাউথ এশিয়ান এয়ারলাইনস্ লিমিটেড, টাওয়ার হেমলেট, ১৬ কামাল আতাতুর্ক এভিনিউ, বনানী, ঢাকা-১২১৩। 

ফোন নাম্বার : ০২ ৯৮৮০৪৯৬। 

এই ঠিকানায় গেলে আপনারা সেবা গ্রহণ করতে পারবেন এবং এই নাম্বারে ফোন করলে আপনারা সরাসরি তাদের সাথে কথা বলে হেলিকপ্টার ভাড়া করতে পারবেন। 



সাউথ এশিয়ান এয়ারলাইনস্ লিমিটেড অনেকগুলো দুইভাবে সেবা প্রদান করে থাকে। একটি হলো শুটিংয়ের জন্য সেবা প্রদান করে থাকে। আরেকটি হলো সাধারণ ভাবে সেবা প্রদান করে থাকে। 


শুটিংয়ের জন্য লিফলেট বিতরণসহ অন্যান্য বাণিজ্যিক কাজের জন্য ভাড়া ত্রিশ শতাংশ বেশি দিতে হয়। এ কোম্পানি থেকে ন্যূনতম ত্রিশ মিনিটের জন্য হেলিকপ্টার ভাড়া নেওয়া যায়। জ্বালানি খরচ, ইন্স্যুরেন্সসহ বাকি সব কিছু কোম্পানিই বহন করে থাকে। তবে ভূমিতে অপেক্ষার জন্য প্রতি ঘণ্টায় দিতে হবে পাচ হাজার টাকা। আর মোট টাকার ওপর ভ্যাট।


আরেকটি হলো সাধারণ ভাবে সেবা প্রদান  সাধারণ কাজের জন্য হেলিকপ্টার ভাড়া দিতে হয় প্রতি ঘণ্টা ৫৫ হাজার টাকা।


ইমপ্রেস অ্যাভিয়েশন লিমিটেড :


যোগাযোগের ঠিকানা : ইমপ্রেস অ্যাভিয়েশন লিমিটেড, ৪০ শহীদ তাজউদ্দীন সরণি, তেজগাঁও, ঢাকা। 

ফোন নাম্বার : ০১৭২৯২৫৪৯৯৬


এই ঠিকানায় গেলে আপনারা সেবা গ্রহণ করতে পারবেন এবং এই নাম্বারে ফোন করলে আপনারা সরাসরি তাদের সাথে কথা বলে হেলিকপ্টার ভাড়া করতে পারবেন। 


ইমপ্রেস অ্যাভিয়েশন লিমিটেড থেকে ভাড়া পাবেন। প্রতি ঘণ্টার জন্য দিতে হবে ১ লাখ টাকা। ৬ আসনের ইসি ১৩০বি-৪ হেলিকপ্টার। ভূমিতে অপেক্ষার জন্য প্রতি ঘণ্টায় দিতে হবে ৫ হাজার টাকা এবং মোট ভাড়ার উপর ১৫ শতাংশ ভ্যাট। 


স্কয়ার এয়ার লিমিটেড:


যোগাযোগের ঠিকানা- স্কয়ার এয়ার লিমিটেড, স্কয়ার সেন্টার, ৪৮ মহাখালী বাণিজ্যিক এলাকা, ঢাকা। 


ফোন নাম্বার : ০১৭১৩১৮৫৩৫২

এই ঠিকানায় গেলে আপনারা সেবা গ্রহণ করতে পারবেন এবং এই নাম্বারে ফোন করলে আপনারা সরাসরি তাদের সাথে কথা বলে হেলিকপ্টার ভাড়া করতে পারবেন। 


স্কয়ার এয়ার লিমিটেডের যে হেলিকপ্টার আছে তাতে একসঙ্গে ছয়জন যাত্রী বহন করা যাবে। এ হেলিকপ্টারের নাম বেল-৪০৭, এতে ভ্রমণ করতে চাইলে প্রতি ঘণ্টার জন্য দিতে হবে ১ লাখ ১৫ হাজার টাকা। এছাড়া স্কয়ার এয়ার লিমিটেডের ৪ জন যাত্রী বহনে সক্ষম রবিনসন আর-৬৬-এর ভাড়া কিছুটা কম। এটা  প্রতি ঘণ্টার জন্য দিতে হবে ৭৫ হাজার টাকা। ভাড়ার সঙ্গে কিছু বাড়তি খরচ দিতে হবে তা হচ্ছে প্রতি ঘণ্টায় ভূমিতে অপেক্ষার জন্য দিতে হবে ৬ হাজার টাকা আর ভূমি থেকে উড্ডয়নের পর প্রতি ঘণ্টায় দিতে হবে ২ হাজার টাকা ইনস্যুরেন্স ফি।




এই কোম্পানির গুলো ছাড়াও কিছু কোম্পানি বাণিজ্যিক হেলিকপ্টার ভাড়া দিচ্ছে সেগুলো হলো-

পিএইচপি গ্রুপ, বাংলা ইন্টারন্যাশনাল, বিআরবি কেব্ল্, মেঘনা গ্রুপ, ইয়াং ইয়াং (আরিয়ান) গ্রুপ, এমএস বাংলাদেশ ইত্যাদি।


হেলিকপ্টার ভাড়া নিতে হলে কিছু নিয়ম মেনেই ভারা নিতে হবে আর এসব নিয়ম সব প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রে একইরকম।


বুকিং দেওয়ার সময় যেভাবে করে



বুকিং দেওয়ার সময় হেলিকপ্টার চার্জের ৫০ ভাগ পরিশোধ করতে হয়। বাকি টাকা দিয়ে দিতে হবে হেলিকপ্টার উড্ডয়নের আগে। হেলিকপ্টার উড্ডয়নের ৪৮ ঘণ্টা আগে কোথায় কেন যাচ্ছেন তা সিভিল এভিয়েশনকে জানাতে হয়। 

কারণ হেলিকপ্টারের নির্দিষ্ট কোনো রুল নেই। এ কারণে কোনো হেলিকপ্টার আকাশে উড্ডয়ন করলে টাওয়ারকে প্রস্তুত রাখতে হয়, যাতে সহজে যোগাযোগ স্থাপন করা যায়। এক্ষেত্রে অবশ্য কারো জরুরি হলে ৫, ১০, ১৫ মিনিট এমনকি এক ঘণ্টার মধ্যেও সিভিল এভিয়েশান অমুমতি দিয়ে থাকে।



এই পোষ্টের মাধ্যমে আপনারা জানতে পারবেন হেলিকপ্টার কোথায় ভাড়া করা হয় এবং বিয়ের জন্য হেলিকপ্টার ভাড়া কত করে। পুরো বিষয়টি উপর আলোচনা করা হয়েছে। আপনারা যারা হেলিকপ্টার ভাড়া করতে চান তারা এই পোস্ট টি মনোযোগ সহকারে পড়লে আশাকরি আপনাদের একটু হলেও উপকার হবে। 


প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য পাওয়ার জন্য নিয়মিত আজকের আইটি ব্লগের সাথেই থাকুন ।
Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url