জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি ডাউনলোড | bdris.gov.bd

 জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি ডাউনলোড:- আপনারা যদি জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি ডাউনলোড করতে চান তাহলে এই আর্টিকেলটি মনোযোগ সহকারে পড়ে জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি ডাউনলোড কিভাবে করবেন সেটি জেনে নিতে পারবেন।

জন্ম নিবন্ধন এখন ছাত্র ছাত্রীদের জন্য বাধ্যতামূলক করা হয়েছে কারণ ইউনিক আইডি তৈরির ক্ষেত্রে এটি অত্যাবশ্যকীয়। অন্যদিকে ছাত্র-ছাত্রী বা সন্তানের জন্ম নিবন্ধন তৈরি করতে বাবা মায়ের জন্ম নিবন্ধন থাকা বাধ্যতামূলক যদি সন্তানের জন্ম ২০০১ সালের পরে হয়। 

জন্ম নিবন্ধন আবেদন করেছেন কিন্তু কপি পান নি শুধু জন্ম নিবন্ধন নম্বর পেয়েছেন এবং জন্ম তারিখ আছে তাহলে এই পোস্টটি আপনার জন্য আপনি অনলাইন হতে জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি ডাউনলোড করে ব্যবহার করতে পারবেন।

আরো পড়ুন - জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করতে কত টাকা লাগে 


জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি ডাউনলোড | bdris.gov.bd

আরো পড়ুন - জন্ম নিবন্ধন বয়স সংশোধন করার নিয়ম | bdris.gov.bd

জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি ডাউনলোড


জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি হচ্ছে একটি জন্ম নিবন্ধন বিবরণী যাতে সব ধরনের তথ্যই থাকে। হুবহু ইউনিয়ন পরিষদ বা পৌর সভা থেকে দেওয়া জন্ম নিবন্ধনের মত নয়। এটি আপনি অনলাইন হতে ডাউনলোড করে বা প্রিন্ট করে নিতে পারেন। এজন্য প্রথমেই আপনার প্রয়োজন হবে জন্ম নিবন্ধন বা জন্ম সনদ নম্বর এবং জন্ম তারিখ। এ দুটো তথ্য হলেই আপনি আপনার ইউনিয়ন পরিষদে না গিয়েও জন্ম নিবন্ধন সাময়িক সনদ বা বিবরণী ডাউনলোড করতে পারবেন ঘরে বসেই।


জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি ডাউনলোড করার নিয়ম 


আপনারা জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি কিভাবে ডাউনলোড করবেন তার নিয়ম নিচে দেয়া হল। আপনারা এই নিয়ম অনুসারে কাজ করলে আপনারা আপনাদের জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি খুব সহজেই ঘরে বসে ডাউনলোড করে নিয়ে ব্যবহার করতে পারবেন। নিচে জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি ডাউনলোড করার নিয়ম আলোচনা করা হলো


 ১. জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি ডাউনলোড করা খুবই সহজ। প্রথম আপনি everify.bdris.gov.bd এই ওয়েবসাইটে যাবেন এবং নিচের মত একটি চিত্র দেখতে পাবেন। এটি একটি ফর্ম সঠিক ভাবে তথ্য ইনপুট দিতে হবে।

২. প্রথমে আপনার জন্ম নিবন্ধন সনদ থেকে জন্ম নিবন্ধন নম্বর ইংরেজীতে লিখুন। বাংলা ইনপুট ব্যবহার করবেন না। খুব সতর্কতার সাথে জন্ম সনদ নম্বরটি প্রবেশ করান। প্রয়োজনে ডাবল চেক করুন ১৭ ডিজিট ইনপুট দিয়েছেন কিনা। কোন ভাবেই ১৭ ডিজিটের কম সংখ্যার জন্ম নিবন্ধন নম্বর হলে হবে না। ১৭ ডিজিটের কম থাকলে বুঝবেন এটি অনলাইন হয়নি এখনও।


৩. জন্ম তারিখ ইনপুট দিন। জন্ম তারিখ লেখার সময় শুরুতে সাল, তারপর মাস এবং তারপর দিন লিখতে হবে। মোট কথা উল্টোভাবে লিখতে হবে। শুধু লিখলেই চলবে না। Date of Birth এর ঘরে কার্সর বা পয়েন্টার রাখলেই একটি ক্যালেন্ডার আসবে সেখান থেকে সিলেক্ট করতে হবে। জন্ম তারিখ লেখার সময় 2016-12-16 এভাবে ড্যাস দিয়ে লিখতে হবে এবং অবশ্যই ইংরেজীতে লিখতে হবে। ক্যালেন্ডার থেকে বছর মাস দিন সিলেক্ট করে দিবেন।


৪. The Answer is এর নিচে যে ঘরটি দেখতে পাচ্চে সেই ঘরে উপরের লেখা অর্থাৎ 17+23 = ? The Answer is এর ঘরে 40 লিখতে হবে। অবশ্যই ফলাফল বা আনসার ইংরেজী ভাষায় লিখবেন। এখানে ১৭+২৩ = ৪০ দেখাচ্ছে মূলত এটি প্রতিবারই পরিবর্তন হয়। তাই একাধিক বার চেষ্টার করলে একাধিক সংখ্যা যোগ, বিয়োগ ইত্যাদি দেখাতে পারে যা আসবে সেই অনুযায়ী আপনি ফলাফল লিখবে।


৫. খুব সহজ ও সর্বশেষ ধাপ হচ্ছে Search এ ক্লিক করা। আপনি Search এ ক্লিক করলেই যারা জন্ম নিবন্ধন ইনপুট দিয়েছেন তার নাম, ঠিকানা, পিতা-মাতার নাম, ইউনিয়ন পরিষদ ইত্যাদি সমস্ত তথ্য চলে আসবে। সেখানে একটি বারকোড দেওয়া থাকবে সেটি মোবাইল দিয়ে স্ক্যান করলেও সমস্ত তথ্য দেখাবে।


৬. CTRL+P কম্পিউটার বা ল্যাপটপের কি বোর্ডে কন্ট্রোল পি চাপলেই প্রিন্ট অপশন চলে আসবে। বিবরণীটি রিসাইজ হয়ে প্রিন্ট প্রি-ভিউ দেখাবে। আপনি Print বাটনে ক্লিক করলেই প্রিন্ট প্রিন্ট করে কাগজটি আপনার হাতে দিয়ে দিবে। এভাবে আপনি অনলাইন হতে জন্ম সনদ বিবরণী বা অনলাইন কপি ডাউনলোড বা প্রিন্ট করে নিতে পারেন।


ওপরে আমি আপনাদের সাথে শেয়ার করেছিজন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি ডাউনলোড। আপনার যদি এই আর্টিকেলটি মনোযোগ সহকারে পড়ে থাকেন তাহলে অবশ্যই জানতে পারবেন জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি কিভাবে করবেন। 

Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url