জমির মালিকানা বের করার উপায় | জমির খতিয়ান বের করার নিয়ম ২০২২

 জমির মালিকানা বের করার উপায় - বর্তমানে আমাদের প্রত্যেকের কাছে সবচেয়ে মূল্যবান সম্পদ হচ্ছে জমি । এবং আমাদের মধ্যে অনেকেই আছে যারা জমি কেনাবেচা করি । তবে আপনি যদি জমি কিনেন তাহলে এই আর্টিকেলটি সম্পন্ন আপনার জন্য । কারণেই আর্টিকেল এর মধ্যে জমির মালিকানা বের করার উপায় কি ? দেখানো হয়েছে  । কারণ বর্তমানে যে ভাবে প্রতারণা হচ্ছে তাই একটি জমি কেনার আগে অবশ্যই আপনাকে জমির মালিকানা সঠিক তথ্য দেখে নিতে হবে । আমাদের গুগল নিউজ ফলো করুন  ।

এই ডিজিটাল যুগে ভূমি মন্ত্রণালয় ভূমিসেবার ডিজিটাল প্রযুক্তি ব্যবহার করেছে । ফলে  যে কোন ব্যাক্তি এখন অনলাইনে জমির মালিকানা যাচাই করতে পারছেন । কিংবা মোবাইলে জমির খতিয়ান খুব সহজে বের করে নিতে পারছেন । তাই জমি কেনাবেচা খুব সহজ হয়ে গেছে তো চলুন নিম্নে জমির মালিকানা বের করার উপায় গুলি দেখে নেয়া যাক । 

আরো পড়ুন - আর এফ এল গ্যাসের চুলার দাম বাংলাদেশ ২০২২

ওয়ালটন ফ্রিজ ১০ সেফটি দাম কত ২০২২

 এশিয়া কাপ ২০২২ বাংলাদেশের দল 

ওয়ালটন রাইস কুকারের দাম কত

সিঙ্গার ফ্রিজ ১২ সেফটি মূল্য তালিকা 2022

 ভিশন ফ্রিজ ১২ সেফটি দাম কত ২০২২

জমির মালিকানা বের করার উপায় | জমির খতিয়ান বের করার নিয়ম ২০২২


জমির মালিকানা বের করার উপায়

জমির মালিকানা বের করার উপায় বর্তমানে টেকনোলজির যুগে জমির মালিকানা বের করার দুটি উপায় রয়েছে । একটা হচ্ছে ঘরে বসে মোবাইলের মাধ্যমে দাগ খতিয়ান দিয়ে খুব সহজে জমির মালিকানা বের করা যায় ।

 দ্বিতীয় নম্বর হচ্ছে আপনি ভূমি দপ্তর অফিসে গিয়ে আপনার জমির দাগ খতিয়ান দেখিয়ে খুব সহজে জমির মালিকানা বের করে নিতে পারেন । তবে অবশ্য নিম্নে step-by-step তবে আপনাদের সুবিধার্থে জমির মালিকানা বের করার উপায় সমস্ত প্রসেস টি দেখানো হয়েছে ।

১. আপনার যদি জমির দাগ খতিয়ান জানা থাকে তাহলে আপনার মোবাইলের ক্রোম ব্রাউজার land.gov.bd এ গিয়ে এই ওয়েবসাইটে প্রবেশ করেন ।

২. ওয়েব সাইটটি ওপেন করার পর একটু নিচের দিকে স্ক্রল করে এসে লেখা থাকবে আর এস খতিয়ান এই অপশনে ক্লিক করবেন ।

৩. এই অপশনে ক্লিক করার পর জমিটি কোন জেলায় কোন উপজেলায় কোন গ্রাম ইত্যাদি নানান তথ্য আপনার কাছ থেকে চাওয়া হবে এবং আপনি সঠিকভাবে তথ্যগুলো প্রদান করবেন ।

৪. এইসব তথ্যগুলো দেয়ার পরে নেক্সট পেজে আপনাকে আরো তথ্য যা হবে সমস্ত তথ্য দেয়ার পরে আপনি জাস্ট সার্চ অপশনে ক্লিক করবেন এবং খুব সহজে আপনি জমির মালিকানার নামটি দেখে নিতে পারবেন । 

ম্যানুয়াল ভাবে জমির মালিকানা বের করার উপায়

উপরের দেয়া তথ্যটি ডিজিটাল পদ্ধতিতে আপনি জমির মালিকানা বের করতে পারবেন । তবে আপনার কাছে যদি উপরের দেয়া তথ্যগুলো না থাকে, তাহলে প্রথমত আপনাকে কর্পোরেশন অফিসে যেতে হবে । এবং অফিসে গিয়ে আপনার অফিসারদের সাথে কথা বলতে হবে । অফিসাররা তাদের পুরনো ফাইল থেকে আপনাকে আপনার জমির ডিটেইলস জানিয়ে দিতে পারবে । 

জমির মালিকানা বের করা কেন প্রয়োজন

আপনি যখন একটি জমি ক্রয় করবেন তখন আপনাকে অবশ্যই দেখে নিতে হবে জমির মালিকানার সঠিক তথ্য । কারণ বর্তমানে বাংলাদেশে ঠকানোর মানুষের অভাব নেই ।

 এছাড়াও জমির ঝামেলা মেটানোর জন্য জমির মালিকানা বের করা অনেকের জরুরী কাজ । এবং আপনি যে জমি ক্রয় করবেন সেটি মৃতব্যক্তির মালিকানা যাচাই করে নিবেন । যদি কোন ওয়ারিশ থাকে তাহলে জমি ক্রয় করার পরে আপনাকে সেই ওয়ারিশ গন জমির দখল নাও নিতে পারে তাই আপনাকে জমির মালিকানা ওয়ারিশ সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নিতে হবে ।

জমির খতিয়ান বের করার নিয়ম ২০২২

আপনি যদি আপনার জমির খতিয়ান বের করতে চান, তাহলে আপনাকে প্রথমত কর্পোরেশন অফিসে বা সেটেলমেন্ট অফিসে যেতে হবে । অফিসে গিয়ে আপনার যাবতীয় তথ্য অফিসার দের দিতে হবে এবং আপনার কাছ থেকে ১০০ টাকা নেয়া হবে । তারপরে কয়েকদিনের মধ্যে আপনার জমির খতিয়ান আপনাকে দেয়া হবে ।

জমির খতিয়ান বের করার নিয়ম ২০২২

জমির খতিয়ান কত প্রকার ও কি কি

 সি-এস খতিয়ান । 

এস-এ খতিয়ান ।

আর-এস খতিয়ান ।

বি-এস খতিয়ান । 


জমির মালিকানা দেখার জন্য একটি খতিয়ানে কি কি থাকতে হবে

১. জমির মালিকের নাম, পিতার নাম ও ঠিকানা।

২. প্রজা বা জমি দখলদারের নাম, ঠিকানা, পিতার নাম ও প্রজা বা দখলদার কোন শ্রেণীভুক্ত ।

৩. নিজস্ব জমি হলে তার বিবরণ।

৪. জমির অবস্থান, পরিমান ও সীমানা।

৫. প্রজাস্বত্ব বিশেষ শর্ত ও তার পরিনতি।

৬. খতিয়ান নং, মৌজা নং, জেএল নং, দাগ নং, বাট্রা নং, এরিয়া নং ইত্যাদি উল্লেখ থাকে।

৭. খাজনার বিবরণ।

৮. এস্টেটের মালিকের নাম, পিতার নাম ও ঠিকানা।

৯. খাজনার যে পদ্ধতিতে নির্ধারিত করা হয়েছে তার বিবরণ।

উপরের দেয়া তথ্যগুলো যদি একটি খতিয়ানে থাকে তাহলে আপনি খুব সহজেই জমি ক্রয় করতে পারবেন বা আসল জমির মালিক এ তথ্য পেয়ে যাবেন । 

Rs খতিয়ান বের করার নিয়ম

আপনি যদি আপনার জমির আর এস খতিয়ান বের করতে চান তাহলে দুটি পদ্ধতিতে বের করতে পারবেন । একটা হচ্ছে অনলাইনের মাধ্যমে এপ্লাই করতে পারবেন এবং দুই নম্বর হচ্ছে কর্পোরেশন অফিসে গিয়ে ম্যানুয়াল পদ্ধতিতে ব্যবহার করতে পারবেন । আর এস খতিয়ান বের করার জন্য অনলাইনে আপনাকে আপনার কিছু তথ্য প্রদান করে মাত্র ৫০ টাকার বিনিময়ে বার করতে পারবেন । এবং ম্যানুয়াল ভাবে কর্পোরেশন অফিসে মাত্র ১০০ টাকার মাধ্যমে খুব সহজে আপনি আর এস খতিয়ান বের করতে পারবেন ।

উপসংহার

এই আর্টিকেল এর মাধ্যমে জমির মালিকানা বের করার উপায় আপনাদের সঙ্গে দেখানো হয়েছে । তার সঙ্গে সঙ্গে জমির খতিয়ান এর বিভিন্ন তথ্য প্রদান করা হয়েছে । আমি আশা করব জমির সম্পর্কিত কোন তথ্য যেকোনো প্রবলেম এই আর্টিকেল এর মধ্যমে আপনি সলভ করে নিতে পেরেছেন । এরকম আরো ভালো ভালো ইনফরমেশন মূলক আর্টিকেল পাওয়ার জন্য আমাদের ওয়েবসাইটে অবশ্যই ভিজিট করবেন । 


























Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url